মুক্তাগাছায় ৭০০ টাকার জন্য ভ্যানচালককে হত্যা

রবিবার বেলা ১২টার দিকে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মোঃ শাহ আবিদ হোসেন সংবাদ সন্মেলনে জানান, মাত্র ৭০০ টাকার জন্য ভ্যান চালককে হত্যা করা হয়েছে বলে হত্যাকারী অভিযোগে গ্রেফতার বাবলু স্বীকার করেছে।

সংবাদ সন্মলনে বলা হয়, জেলার মুক্তাগাছা উপজেলার গড়বাজাইল এলাকার বাসিন্দা ভ্যান চালক চালক শাহজাহান ওরফে সাজুর গলাকাটা দেহ গত ৩১ মার্চ সকালে একটি ফিশারীর পাড় থেকে পুলিশ উদ্ধার করে । পরবর্তীতে ভিকটিমের স্বজনেরা খবর পেয়ে থানায় গিয়ে মৃত দেহ দেখে পরিচয় নির্ণয় করে।

এঘটনায় ভিকটিমের ভাই মোঃ ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে এজাহার দায়ের করলে, মুক্তাগাছা থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু হয়। এটি একটি চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ড বিধায় তদন্তের দায়িত্ব শুরু থেকেই জেলা গোয়েন্দা শাখার উপর ন্যাস্ত করা হয়। ভিকটিম কোন মোবাইল ব্যবহার না করায়, ডিবি’র টিম বিভিন্ন ছদ্ম বেশে মামলাটি তদন্ত করে দ্রুত সময়ে রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয় এবং ঘটনায় জড়িত আসামী বাবলুকে (৩২) গতকাল শুক্রবার ৬ ধৃত করতে সক্ষম হয়। তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে লোমহর্ষক হত্যার ঘটনা স্বীকার করে এবং তার স্বীকার মতে ভিকটিমের বিচ্ছিন্ন মাথা শুক্রবার রাত ০৮.০০ ঘটিকায় পূর্বের ঘটনাস্থল হতে ৩ কিঃ মিঃ দূরে বানিয়াকাজী গ্রামের একটি কচুরিপানাযুক্ত ডোবা হতে ডিবি পুলিশ উদ্ধার করে। ৭০০ শত টাকাকে কেন্দ্র করে এই হত্যাকান্ড হয়েছে মর্মে তথ্য পাওয়া যায়। আসামী ভিকটিমের নিকট ৭০০ পাইত। টাকা না দেওয়াতে ঘটনার দিন রাতে নির্জন স্থানে নিয়ে তর্ক বিতর্করে এক পর্যায়ে ঘুষি দেয়। ভিকটিম অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। পরবর্তীতে আসামী বাবলু (৩২) ভিকটিমকে কাঁধে করে নিয়ে ঘটনাস্থল ফিশারীর পাড়ে ফেলে আসে এবং পুনরায় বাড়ী হতে দা নিয়ে তার গলা কেটে বিচ্ছিন্ন করে ৩ কিঃ মিঃ দূরে অন্য একটি ডোবায় লুকিয়ে রাখে। ধৃত আসামীর নাম- মোঃ বাবলু মিয়া (৩২), পিতা-মোঃ হাতেম আলী, মাতা-মোছাঃ কয়েতবানু, সাং- বানিয়াকাজী, থানা-মুক্তাগাছা, জেলা-ময়মনসিংহ।

সংবাদ সন্মেলনে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন ।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন