কালিহাতীতে বিচার চাওয়ার অপরাধে শিক্ষিকাকে হাত পা বেধে নির্যাতনের অভিযোগ

বিচার চাওয়ার অপরাধে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় প্রধান শিক্ষিকা কর্তৃক সহকারী শিক্ষিকাকে হাত পা বেধে অমানুষিক নির্যাতন করার অভিযোগ ওঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৫ মে বৃহস্পতিবার উপজেলার ৭৭নং ফুলবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

জানা যায়, উপজেলার ৭৭ নং ফুলবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সুলতানা রাজিয়ার বিভিন্ন বৈরী আচরন ও অনিয়মের বিরুদ্ধে একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা নার্গিস আক্তার উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহবুবুর রহমানের কাছে মৌখিক অভিযোগ দায়ের করলে প্রধান শিক্ষিকা সুলতানা রাজিয়াকে প্রাথমিক ভাবে শতর্ক করেন। এতে প্রধান শিক্ষিকা ক্ষিপ্ত হয়ে ২৫মে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নার্গিস আক্তারকে গালি-গালাজ করতে থাকে। বিকাল তিনটার সময় বৈরী আচরণের প্রতিবাদ করলে প্রধান শিক্ষিকা সুলতানা রাজিয়া চুলের মুঠো ধরে টেনে হেচরে তার অফিস কক্ষে নিয়ে হাত পা বেধে কিল,ঘুষি,লাথি মেরে অমানুষিক নির্যাতন করেন। পরে স্থানীয় লোকজন এসে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন বলে ভোক্তভোগী নার্গিস আক্তার জানান।

স্কুলের পাশের বাড়ীর রত্না ও মর্জিনা জানান, বড় মেডাম বদ্ রাগী নার্গিস মেডামকে তালা মেরে আটকিয়ে মেলা মারছে। উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহবুবুর রহমান জানান, বিষয়টি ন্যাক্কারজনক এ ঘটনায় আমরাও অনুতপ্ত এবং প্রধান শিক্ষিকার নিকট থেকে এটা আশা করিনি। তবে তিন সদস্য বিশিষ্ট্য তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

ঘটনার বিষয়ে প্রধান শিক্ষিকা সুলতানা রাজিয়ার সাথে বার বার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মুঠো ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন