লড়াই করে হারল বাংলাদেশ

আবারও হারল বাংলাদেশ। তবে এবারের হারটা অনেকটা জেতার মতই। কারণ বেশ লড়াই করে হেরেছে বাংলাদেশ। বিশেষ করে মাহমুদউল্লাহর আউটের পরই ত্বরান্বিত হলো হারটা। তবুও সামান্য আশা জাগিয়েছিল বাংলাদেশের শেষ তিনটি উইকেট জুটি। ‘আশা’ বলতে ড্র। না, সেটি হয়নি।

হমুমদউল্লাহর সঙ্গে সাব্বিরের জুটিটা ভালোই দাঁড়াচ্ছিল। ২২ রান করে ফেরেন তিনি। ১৮ ওভার স্থায়ী ৫১ রানের ষষ্ঠ উইকেট জুটিটি ভাঙার পরেই স্বস্তি ফেরে ভারতীয় দলে। সাব্বিরের পর মাহমুদউল্লাহর বিদায়ই পরিষ্কার করে দেয় ম্যাচের গতি-প্রকৃতি, বাংলাদেশের হারটা তখন হয়ে দাঁড়ায় কেবল সময়েরই ব্যাপার। ১৪৯ বলে ৬৪ রান করে ইশান্তের বলে ভুবনেশ্বর কুমারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ১৯ মাস পর টেস্টে ফিফটি পাওয়া এই ব্যাটসম্যান। এরপরও হায়দরাবাদ টেস্ট ড্র করার ক্ষীণ আশা জাগিয়েছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ-কামরুল ইসলাম রাব্বীর অষ্টম উইকেট জুটি। ৬১ বলে ২৩ রান করে মিরাজ ফিরে গেলে কামরুল এক প্রান্ত আগলে রাখেন। ৭০ বলে ৩ রানে অপরাজিত ছিলেন বাংলাদেশ দলের এই পেসার।

ভারতের মাটিতে প্রথমবারের মতো টেস্ট খেলতে যাওয়া বাংলাদেশ একেবারে শূন্য হাতে ফিরছে না হায়দরাবাদ থেকে। এই টেস্টে ভারতের ৬৮৭ রানে পিষ্ট হয়ে আগেই আত্মসমর্পণ করেননি মুশফিকরা।
টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল ভারতের বিপক্ষে পাঁচটা দিন বাংলাদেশ যে লড়াই করেছে সেটি নিয়ে প্রশংসিত হতেই পারে তারা।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন