বাংলাদেশ ফ্যাশন উইক হয়ে গেলো লন্ডনে। গত শনিবার প্রথমবারের মতো ‘বাংলাদেশ ফ্যাশন উইক’ আয়োজনের মধ্য দিয়ে শুরু হলো বাংলাদেশ ও লন্ডন প্রবাসীদের মধ্যে একটি মেল-বন্ধন। এক দিনে হলেও এ ধরনের অয়োজনকে ‘উইক’ হিসেবেই অভিহিত করা হয়।

পূর্ব লন্ডনের অভিজাত এলাকা ক্যানারি ওয়ার্ফের ‘ইস্ট উইন্টার গার্ডেন’ মিলনায়তনে বসে বাংলাদেশি ফ্যাশনের নান্দনিক এই আয়োজন। আয়োজক সদ্যগঠিত ‘বাংলাদেশ ফ্যাশন কাউন্সিল ইউকে’। এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক ফ্যাশনের তীর্থস্থান লন্ডনের ফ্যাশন দিনপঞ্জিতে যুক্ত হলো বাঙালির শৌখিন পরিচ্ছদের প্রদর্শনী।

নিজের নকশা করা পোশাক প্রদর্শনীর পর কয়েকজন মডেলকে নিয়ে মঞ্চে হাজির হন বিবি রাসেল প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত ‘বাংলাদেশ ফ্যাশন উইকে’ মোট নয়জন নকশাকারের পরিচ্ছদ প্রদর্শিত হয়। বাংলাদেশ থেকে বিবি রাসেল ছাড়াও এসেছিলেন ডিজাইনার রিনা লতিফ ও পোশাকের প্রতিষ্ঠান প্রীতি বুটিক। ছিল যুক্তরাজ্যে বেড়ে ওঠা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণ ডিজাইনার নাদিয়া-আয়শা, আফসানা ফেরদৌসী, রোকিয়া উল্লাহসহ লন্ডনের ইসলামিক ডিজাইন হাউস, বিবি লন্ডন ও জারকা অব লন্ডনের পোশাক প্রদর্শনী।

fashionweek3

এই ফ্যাশন শো আয়োজনের মূল লক্ষ্য আন্তর্জাতিক ফ্যাশনের সামঞ্জস্যপূর্ণ বাংলাদেশি পোশাক ও বাংলাদেশি ঐতিহ্যে প্রভাবিত ডিজাইনারদের কাজ তুলে ধরা। হয়েছেও তাই। গতানুগতিক ধারণার বাইরে গিয়ে ভিন্ন কাপড়ে বানানো বোরকায় হুডি যোগ করা হয়েছে। লাগানো হয়েছে পকেট। কাঁধে ব্যাগ আর কানে হেডফোন লাগিয়ে এসব বোরকা পরা মডেলের চোখেমুখে তারুণ্য আর আধুনিকতার কোনো কমতি নেই।

ব্রিটিশ বাংলাদেশ ফ্যাশন কাউন্সিলের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী ফখরুল হক বললেন, তিনি লন্ডনে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কাসহ বিভিন্ন দেশের ‘ফ্যাশন উইক’ হতে দেখেছেন। অথচ তৈরি পোশাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম রপ্তানিকারক বাংলাদেশের সে রকম কোনো আয়োজন নেই। সেই অভাব পূর্ণ করতেই এবং বাংলাদেশি ঐতিহ্যে প্রভাবিত ফ্যাশন ডিজাইনারদের পৃষ্ঠপোষকতা দিতেই ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশ ফ্যাশন কাউন্সিল’ গড়ার উদ্যোগ নেন তিনি। এটি একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান।

এই শোর প্রতি আগ্রহ আর টিকিটের অভাবনীয় চাহিদার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে এই আয়োজন করতে হবে।

বাংলাদেশি পোশাকের বৈচিত্র্যময় রূপ দেখে যুক্তরাজ্যে বেড়ে ওঠা তরুণীরাও বেশ অভিভূত। কথা হলো আমল, রোকিয়া, রুকসানাসহ কয়েকজনের সঙ্গে। তাঁরা বললেন, বেশ কিছু পোশাক তাঁদের মনে ধরেছে। ওই সব পোশাক কিনতে আগ্রহী তাঁরা।