পর্নো ছবিতে অভিনেতা ছিলেন ডনাল্ড ট্রাম্প

পর্নো ছবির তারকা ছিলেন ডনাল্ড ট্রাম্প! অবাক হওয়ার মতো কথা হলেও সম্প্রতি এমনই এক তথ্য প্রকাশ পেয়েছে যে রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডনাল্ড ট্রাম্প একবার অভিনয় করেছিলেন একটি সফটকোর পর্নো মুভিতে। প্রাপ্তবয়স্কদের ম্যাগাজিন প্লেবয় ওই ভিডিওর প্রযোজনা করেছিল।

২০০০ সালে ভিডিও সেন্টারফোল্ড শিরোনামের ওই মুভিতে একটি দৃশ্য ছিল, যাতে সরাসরি কোন যৌনতা ছিল না। ওই দৃশ্যে দেখা যায়, কয়েকজন স্বল্পবসনা প্লেবয় মডেলের সঙ্গে দেখা যায় ট্রাম্পকে। ট্রাম্পকে এ সময় শ্যাম্পেনের বোতল খুলতে দেখা যায়। নিউ ইয়র্কের একটি সড়কে প্লেবয়-এর লোগো অঙ্কিত একটি লিমুজিন গাড়িতে ফোম সেপ্র করতেও দেখা যায় এ বিলিয়নিয়ারকে। এ খবর দিয়েছে দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট ও হাফিংটন পোস্ট।

খবরে বলা হয়, নিউ ইয়র্কের বাফালোয় প্রাপ্তবয়স্কদের একটি ভিডিও স্টোর থেকে এই ফুটেজ সংগ্রহ করে প্রখ্যাত ওয়েবসাইট বাজফিড। ওয়েবসাইটটি জানায়, ফুটেজের বাকি অংশে ‘সম্পূর্ণ নগ্ন নারীদের বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গিতে দাঁড়াতে, নাচতে ও একে অপরকে স্পর্শ করতে দেখা যায়।’

সম্প্রতি সাবেক মিস ইউনিভার্স অ্যালিসিয়া ম্যাচাদোর বিরুদ্ধে ডনাল্ড ট্রাম্প আক্রমণ করেছেন। ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারির সমর্থক অ্যালিসিয়া। নব্বইয়ের দশকে ট্রাম্পের মালিকানাধীন মিস ইউনিভার্স সুন্দরী প্রতিযোগিতায় মুকুট জিতেছিলেন তিনি। তখন ট্রাম্প তাকে বিভিন্ন অবমাননাকর শব্দে ডেকেছেন বলে অভিযোগ করে তোলপাড় বাধিয়ে দেন অ্যালিসিয়া। এমনিতেই নারীদের অপমানব্জনক কায়দায় ডাকার অভিযোগ রয়েছে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। অ্যালিসিয়ার দাবির পর এ অভিযোগ নতুন মাত্রা পায়।

প্রত্যুত্তরে পরশু ট্রাম্প টুইটারে এক গাধা অভিযোগ আনেন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। টুইটারে তাকে ‘বিরক্তিকর’ আখ্যা দিয়ে ট্রাম্প দাবি করেন, অ্যালিসিয়ার ‘সেক্স টেপ’ রয়েছে। অনুসারীদের ওই সেক্স টেপ ‘চেক করতে’ও বলেন তিনি। যদিও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, এ ধরনের কোনো সেক্স টেপ অ্যালিসিয়ার নেই। তার নামে বেশ কিছু ফুটেজ বিভিন্ন সাইটে পাওয়া যায়, যেগুলো আদতে অ্যালিসিয়ার নয়। তবে স্প্যানিশ একটি রিয়েলিটি শোতে তাকে এক ব্যক্তির সঙ্গে দৃশ্যত যৌনক্রিয়া করতে দেখা যায়। কিন্তু এর সত্যতা নিশ্চিত করা যায়নি। এর বাইরে অ্যালিসিয়া অবশ্য প্লে বয়ের মেক্সিকান সংস্করণে অর্ধনগ্ন হবে উপস্থিত হয়েছিলেন। ভেনেজুয়েলিয়ায় জন্ম নেওয়া এ অভিনেত্রী বর্তমানে আমেরিকান নাগরিক।

তবে এবার বেরিয়ে এল, অ্যালিসিয়ার সেক্স টেপ না থাকলেও, খোদ ডনাল্ড ট্রাম্পই পর্নো ছবিতে অভিনয় করেছিলেন! তবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দাঁড়ানোর আগে মানুষের যৌন জীবন এমনকি সেলেব্রেটি সেক্স টেপ নিয়ে এতটা শালীনতা দেখাননি ট্রাম্প।

যেমন, ২০০৩ সালে হাওয়ার্ড স্টার্নের সঙ্গে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি স্বীকার করেন, তার বর্তমান স্ত্রী মেলানিয়ার সঙ্গে তিনি প্যারিস হিলটনের সেক্স টেপ দেখেছিলেন।

আরো দেখুন
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker