মুক্তাগাছায় পঁচা মাংস বিক্রি করায় কসাইয়ের জেল

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার নতুন বাজারে বাসি ও পঁচা মাংস বিক্রি করায় জুম্বাত আলী (৩৫) কসাইয়ের ১৫ দিনের বিনা শ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

তাজুল ইসলাম;   ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার নতুন বাজারে বাসি ও পঁচা মাংস বিক্রি করায় জুম্বাত আলী (৩৫) কসাইয়ের ১৫ দিনের বিনা শ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টরের চোখ ফাঁকি দিয়ে বাসি, পঁচা ফ্রিজিং গোস্ত বিক্রি করে আসছে।

জুম্বাত আলীর স্বীকারোক্তিতে ভোক্তা অধিকার আইন-২০০৯ এর আইনে এ সাজা দেওয়া হয়।

বুধবার দুপুরে স্থানীয় গোস্ত ক্রেতার ফোনের ভিত্তিতে মুক্তাগাছা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মাসুদ রানা শহরের নতুন বাজারে মোশাররফ হোসেনের দোকানে অভিযান চালিয়ে জুম্বাত আলী (কসাই) নামে এ দোকান কর্মচারীকে ১৫ দিনের কারাদন্ড দেন। এসময় কসাই মোশাররফ হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।

দোকানের সকল মালামাল জব্দ করে গোস্তের দোকানটি বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং পঁচা গোস্ত উদ্ধার করে মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মনসুর বলেন এধরনের কোন অন্যায় কাজ বরদাশত করা হবে না। উপজেলার সকল গোস্তের দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদলতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কসাইখানায় নিয়মিত গরুর সুস্থ্যতা যাচাই করার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ রানা মিয়া বলেন আমাদের জনবল স্বল্পতার কারনে নিয়মিত কসায় খানায় গরু যাচাই করা হয় না।

উপজেলা স্যানিটারি ইন্সিপেক্টর মোঃ আব্দুল হাই বলেন তাদেরকে (কসাই) বার বার সর্তক করার পরও তারা এ কাজ করছে। জুম্বাত আলী শহরের পাড়াটঙ্গী এলাকার বাসিন্দা।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন