ভাষা সৈনিক খোন্দকার মালেক শহীদুল্লাহ’র চিকিৎসায় এগিয়ে এলেন ইউএনও সুবর্ণা সরকার

ভাষা সৈনিক, মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, সাবেক গণপরিষদ সদস্য খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্-এর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে মঙ্গলবার  মুক্তাগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব সুবর্ণা সরকার তার বাসায় যান।

ভাষা সৈনিক, মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, সাবেক গণপরিষদ সদস্য খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্-এর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে মঙ্গলবার  মুক্তাগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব সুবর্ণা সরকার তার বাসায় যান।

এ সময় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস, মেডিকেল অফিসার ডা. সালেহীন এবং এসিস্টেন্ট খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্কে নিবিড়ভাবে পরীক্ষা করেন।

তাঁর বর্তমান শারীরিক অবস্থা, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপত্র ও নির্দেশনা বিশ্লেষণ করে ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, তিনি মূলত বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছেন । সঠিক সেবা, হাত-পায়ের নিয়মিত ব্যায়াম, সময় অনুসারে ঔষধ প্রদান এবং পুষ্টিকর ও সহজপাচ্য খাবার নিশ্চিত করতে পারলে তিনি ভালো থাকবেন।

এ সময় খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্ এর স্ত্রী ও পুত্রকে হাত-পা-কোমর এবং বিভিন্ন জোড়ার ব্যায়ামসমূহ  শিখিয়ে দেয়া হয়।  হাসপাতালের ছোট্ট, অপরিসর বেডে নয়, নিজ বাড়িতে পরিবার-পরিজনের মাঝেই খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্ বেশি ভালো অবস্থায় আছেন বলে জানান ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস।

ভাষা সৈনিক খোন্দকার মালেক শহীদুল্লাহ'র চিকিৎসায় এগিয়ে এলেন ইউএনও সুবর্ণা সরকার

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্ এর শারীরিক অবস্থার খবর জানতে পেরে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি ৩০,০০০/- (ত্রিশ হাজার) টাকার আর্থিক অনুদান প্রেরণ করেছেন। প্রতিমন্ত্রীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা সরকার আর্থিক অনুদান তুলে দেন খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্ এর স্ত্রী সুরাইয়া মালেক এর হাতে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা সরকার জানান, প্রতি সপ্তাহে খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ্ এর শারীরিক অবস্থা মনিটরিং করার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন