মুক্তাগাছায় শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজে বর্ণে শোভিত বৃক্ষ- ‘বর্ণমালা’

‘একুশের চেতনাস্নাত প্রিয় বাংলাদেশ’। লাল, নীল, হলুদ, বেগুনী, কমলা, সাদায় রঞ্জিত বাংলা বর্ণমালার প্রতিটি অক্ষর। সংখ্যায় পরিবেষ্টিত ডালে ডালে পাখিদের আনাগোনায় নেচে ওঠা পত্রপল্লবে বেজে ওঠে প্রভাত ফেরির গান। এমনই বর্ণমালা ও সংখ্যায় সেজে ওঠেছে শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজ চত্বরে বেড়ে ওঠা বৃক্ষ- রেইন্ট্রি। ভাষার মাস, ভাষা দিবস ও মুজিব বর্ষকে উপলক্ষ করে বর্ণমালায় সাজানো হয়েছে বৃক্ষটিকে। এর নাম দেয়া হয়েছে ‘বর্ণমালাবৃক্ষ’।

‘একুশের চেতনাস্নাত প্রিয় বাংলাদেশ’। লাল, নীল, হলুদ, বেগুনী, কমলা, সাদায় রঞ্জিত বাংলা বর্ণমালার প্রতিটি অক্ষর। সংখ্যায় পরিবেষ্টিত ডালে ডালে পাখিদের আনাগোনায় নেচে ওঠা পত্রপল্লবে বেজে ওঠে প্রভাত ফেরির গান। এমনই বর্ণমালা ও সংখ্যায় সেজে ওঠেছে শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজ চত্বরে বেড়ে ওঠা বৃক্ষ- রেইন্ট্রি। ভাষার মাস, ভাষা দিবস ও মুজিব বর্ষকে উপলক্ষ করে বর্ণমালায় সাজানো হয়েছে বৃক্ষটিকে। এর নাম দেয়া হয়েছে ‘বর্ণমালাবৃক্ষ’।

কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ ইদ্রিস আলী বলেন, কলেজ চত্বরের রেইন্ট্রি গাছের আশেপাশের স্থান ছিলো আগাছায় পূর্ণ। সে স্থানকে সুন্দর রূপ দেবার জন্য একটি পরিচছন্ন কার্য়ক্রমের পদক্ষেপ নেয়া হয়। বিশেষ করে, সবকিছুর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে শিক্ষার্থীদেরকে সৃজন ভাবনার মধ্যে দিকে নিয়ে আসা। এ সৃজনশীল চিন্তার প্রকাশই হলো ‘বর্ণমালাবৃক্ষ’।

মুক্তাগাছায় শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজে বর্ণে শোভিত বৃক্ষ- ‘বর্ণমালা’

মুক্তাগাছা সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক বর্ণমালাবৃক্ষ সম্পর্কে বলেন, কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ ইদ্রিস আলী যেদিন থেকে এ কলেজে যোগদান করেছেন, সেদিন থেকেই কলেজকে আধুনিকায়ন ও সুসজ্জিতকরনের লক্ষে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কলেজ মাঠকে অবৈধ দখলমুক্ত করে বঙ্গবন্ধু চত্বর স্থাপন ও বর্ণমালাবৃক্ষ এর অনন্য উদাহরণ।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন