মুক্তাগাছা পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীদের কর্মবিরতি

পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীদের রাষ্ট্রীয় কোষাগার হতে বেতন ভাতা ও পেনশনসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা প্রদানের দাবীতে কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে মুক্তাগাছা পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীগন সোমবার ১ম দিনের কর্মবিরতি পালন করে।

বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন মুক্তাগাছা শাখার ব্যানারে ১৫ জানুয়ারী ভোর ৬টা ১৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার সন্ধা ৬টা পর্যন্ত দেশের ৩২৬টি পৌরসভার ন্যায় একযোগে (পানিসরবরাহ সেবা ব্যতীত) সব ধরনের সেবা প্রদান বন্ধ রেখে দুই দিনের পূর্ণ দিবস কর্মবিরতির ১ম দিন অতিবাহিত করেন। কর্ম বিরতিতে অংশগ্রহন করেন পৌরসভার কর্মকর্তা- কর্মচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মুখলেছুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মুশফিকুর রহমান, পৌরসভার সচিব মোঃ ইউনুছ আলী, বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক-১ ও সহকারী প্রকৌশলী মোঃ শাহজাহান কবীর, ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ কামরুজ্জামান কামাল, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো: জয়নুল আবেদীন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সোনিয়া ইয়াসমিন, হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা এমএ বারী আকন্দ, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ সাদেক মিয়া, প্রচার সম্পাদক নূরুল মোমেন খান, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম মাহবুব মোর্শেদ রাসেল, নির্বাহী সদস্য একেএম মোফাজ্জল হক দুদু, মো: শামীম কবির, সৈয়দ মোকছেদুল হক, হাসিবুর রহমান, জাহাঙ্গীর আলম সোহেল, আব্দুল কাদের সেলিম প্রমূখ।

এদিকে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতির ফলে পৌর নাগিরকগনের দর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মুক্তাগাছা পৌর এলাকায় বিভিন্ন রাসÍা ও অলিগলিতে ময়লা আবর্জনার স্তুব জমে দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। জন্ম নিবন্ধন, নাগরিকত্ব সনদ প্রদান বন্ধ থাকায় সেবা গ্রহনকারী নাগরিকগণ সেবা গ্রহনে বঞ্চিত হচ্ছে । এমনকি ইপিআই সেবা কার্যক্রম বন্ধ খাকায় নির্দিষ্ট বয়সের শিশু ও মহিলাগণ ইপিআই সেবা গ্রহন করতে পারছেনা। ফলে চরম ভোগান্তিতে পরেছে পৌরসভার নাগরিকরা।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন