সারাবাংলা

সোনার দোকানে ডাকাতি, গোলাগুলিতে চার পুলিশ আহত

মানিকগঞ্জ শহরে একটি সোনার দোকানে ডাকাতি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় জেলার সাটুরিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ডাকাতদের গুলিবিনিময়ে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ছাড়া, ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে।
বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উভয়পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময় হয়। আহতরা হলেন- সাটুরিয়া থানার এসআই আসলাম, এসআই হাসান ও কনস্টেবল ওয়াহেদ। আহত আরেকজনের নাম জানা যায়নি।

বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শহরের স্বর্ণকারপট্টির নাগ জুয়েলার্সে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতি করে। যাওয়ার সময় অস্ত্রধারী মুখোশ পরিহিত ডাকাতেরা বেশ কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়।

সাটুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আমিনুর রহমান জানান, ডাকাতির খবর পেয়ে সাটুরিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একটি ট্রাক দিয়ে রাস্তায় ব্যারিকেড দেওয়া হয়। সেখানে একটি মাইক্রোবাসকে চ্যালেঞ্জ করলে তা থেকে ককটেল ও গুলি ছোড়া হয়। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এরপর মাইক্রোবাসের আরোহীরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় একজনকে আটক করা হয়। নাগ জুয়েলার্সের সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা গেছে, সশস্ত্র ডাকাতেরা রিভলবার উঁচিয়ে দোকানে ঢুকে। তাদের অধিকাংশই মুখোশধারী ছিল। তারা দোকানে থাকা সব স্বর্ণালংকার লুট করে। এ সময় আশপাশের দোকানিরা এই ঘটনা দেখলেও অস্ত্রের ভয়ে কেউই এগিয়ে আসেননি। এ ঘটনার পরপরই জেলা শহরের সব দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

আহত পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রথমে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে তাদের মধ্যে দুজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

আরো দেখুন
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker