ঢাবির ভিসি মনোনয়নে গঠিত প্যানেল স্থগিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিশেষ সিনেট অধিবেশনে মনোনীত ৩ সদস্যর ভিসি প্যানেলের কার্যক্রম স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে গত ২৯ জুলাইয়ের সিনেট অধিবেশন নিয়ে জারি করা রুল চার সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্থগিত হওয়া তিন সদস্যের ভিসি প্যানেলের সদস্যরা হলেন-বর্তমান ভিসি আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, অধ্যাপক কামাল উদ্দিন ও অধ্যাপক আব্দুল আজিজ।

বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বিচারপতি জিনাত আরার নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চকে এই রুল নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে। রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বর্তমান ভিসি আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক দায়িত্ব পালন করে যাবেন বলে আদেশে বলা হয়েছে।আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রোকনউদ্দিন মাহমুদ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসুরু ও এ এফ এম মেজবাহ উদ্দিন।

এর আগে গত ২৬ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্যানেল মনোয়নের জন্য ২৯ জুলাই ডাকা সিনেটের বিশেষ অধিনবেশনের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়ে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন চেম্বার আদালত।পরে সিনেট অধিবেশনে তিন সদস্যর প্যানেল গঠিত হয়।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্যানেল মনোয়নের জন্য ২৯ জুলাই ডাকা সিনেটের বিশেষ অধিনবেশনের ওপর স্থগিতাদেশ দেন হাইকোর্ট। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ ১৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটদের করা রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি এম, ফারুকের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এই আদেশ দেন।

আদালত রুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আদেশ ১৯৭৩ সালে ২০ (১) ধারা অনুযায়ী সিনেট গঠন না করে ২৯ জুলাই ডাকা সভা কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত হবে না তা জানতে চান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আদেশ ১৯৭৩ সালে ২০ (১) ধারা অনুযায়ী সিনেট গঠনে হাইকোর্ট নির্দেশ দেন বলে জানান ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ভিসি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড.আবু আহসান মোহাম্মদ সামসুল আরেফিন, প্রো-ভিসি (একাডেমিক), প্রো-ভিসি (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ও বাংলাদেশের পক্ষে শিক্ষা সচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। এর আগে গত ১৬ জুলাই ঢাবির রেজিস্ট্রার একটি চিঠি দেন সিনেট সভার জন্য।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম বলেন, আবেদনকারীদের দাবি রেজিস্ট্রার্ড গ্র্যাজুয়েটের অনেক প্রতিনিধির পদ খালি। তাই এ নির্বাচন না দিয়ে সিনেট সভা ডেকে উপাচার্য প্যানেল মনোনয়ন করা ঠিক নয়। এ কারণে ১৬ জুলাইয়ের এ চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ১৫ জন হাইকোর্ট রিট করেন।

আরো দেখুন

এই সম্মন্ধীয় সংবাদ

Back to top button
Close

অ্যাডব্লক সনাক্ত

আপনার বিজ্ঞাপন ব্লকার নিষ্ক্রিয় করে আমাদের সমর্থন বিবেচনা করুন